1. [email protected] : mainadmin :
  2. [email protected] : Mohsin Molla : Mohsin Molla
  3. [email protected] : subadmin :
বাংলার চোখ নিউজ | অনলাইন সংস্করণ | দেওয়ানগঞ্জ ৯০ শ্রমিক-কর্মচারী ছাঁটাই
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন

দেওয়ানগঞ্জ ৯০ শ্রমিক-কর্মচারী ছাঁটাই

বাংলার চোখ সংবাদ
  • সময়ঃ বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ওসমান হারুনী :

দীর্ঘদিন স্থায়ী চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ প্রাপ্ত হিসেবে চাকরি করছেন। বেতন পেয়ে সংসার চালিয়েছেন তারা। চাকরিতে স্থায়ী হওয়ার আশ্বাসও পেয়েছেন অনেকবার। কিন্তু বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্যশিল্প করপোরেশন হঠাৎ দুটি বিজ্ঞপ্তির দিয়ে ৯০ জন শ্রমিক-কর্মচারীকে চাকরি থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে। বিশেষ করে চলতি ২০২১-২২ আখ মাড়াই মৌসুম থেকে স্থায়ী চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ প্রাপ্ত ৯০ জন শ্রমিক-কর্মচারীর চাকরি নেই। এতে করে ঐ সব শ্রমিক- কর্মচারী পরিবার পরিজন নিয়ে হতাশার প্রহর গুনছেন।

সংশ্লিষ্ট সুগারমিল সূত্রে জানা যায়, স্থায়ী চুক্তিভিত্তিক শ্রমিক-কর্মচারী রয়েছে ১৭০ জন। তারা স্থায়ী চুক্তিভিত্তিক শ্রমিক-কর্মচারী হলেও দীর্ঘ ৮ থেকে ১০ বছর যাবৎ এ মিলে চাকরি করে আসছেন। হঠাৎ গত ৫ ও ৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্যশিল্প করপোরেশনের পৃথক দুটি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে চুক্তিভিত্তিক ১৭০ শ্রমিক-কর্মচারীর মধ্যে ৯৪ জনকে চাকরি থেকে ছাঁটাই করা হয়। ছাঁটাই হওয়া বিজ্ঞপ্তিতে শ্রমিক-কর্মচারীদের নাম ও পদবি উল্লেখ করা হয়েছে।

অপর দিকে ছাঁটাই করা শ্রমিকের বিপরীতে ইতি পূর্বে দেশের ৬টি সুগার মিল বন্ধ (স্থগিত) হয়েছে সে সমস্ত মিল থেকে যাদের চাকরি স্থায়ী হিসাবে নিয়োগ প্রাপ্ত ছিলেন, সে সব শ্রমিক-কর্মচারীদের আবার জিল বাংলা সুগার মিল দেওয়ানগঞ্জে বদলী করে চুক্তি ভিক্তিক কর্মচারীদের বিপরিতে স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে বদলীকৃত বিভিন্ন মিলের শ্রমিক-কর্মচারীর মধ্যে শ্রায় ৪০ জন এসে যোগদান করেছেন। ফলে ছাঁটাই হওয়া ৯০ জন শ্রমিক-কর্মচারী পরিবারবর্গ নিয়ে হতাশায় প্রহর গুনছেন।

ছাটাই হওয়া শ্রমিক দেওয়ানগঞ্জ চরভবসুর পূর্বপাড়ার এলাকার বাসিন্দা রেজাউল করিম জানান, তিনি গত ৮ বছর থেকে মিলে ইলেকট্রনিস সহকারি পদে স্থায়ী চুক্তিভিত্তিক চাকরি করে আসছি। কিন্তু হঠাৎ করে কর্তৃপক্ষ আমাদের ছাঁটাই করছে। এখন আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে কিভাবে দিনাতিপাত করবো? তাই আমরা হতাশায় পড়েছি।

এ ব্যাপারে জিল বাংলা চিনি কল ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রায়হানুল হক রায়হান তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ছাঁটাইকৃতরা স্থায়ী পদে হলেও তাদের নিয়োগ চুক্তিভিত্তিক। কর্তৃপক্ষ যে কোনো সময় সে চুক্তি বাতিল বা স্থগিত করতে পারেন। যেহেতু সরকারি সিদ্ধান্তের শ্রমিক-কর্মচারী ছাঁটাই করা হচ্ছে। এ বিষয়ে আমাদের ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের পক্ষ থেকে করার কিছুই নেই বলে জানান।

এ বিষয়ে জিল বাংলা সুগার মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনিসুল আজম বলেন, শ্রমিক-কর্মচারী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্যশিল্প করপোরেশন নিয়েছে। এ ব্যাপারে সরকারি সিন্ধান্তের আমাদের কোনো ভিন্নমতের সুযোগ নেই। কারণ স্থগিত (বন্ধ) হওয়া ৬টি চিনিকল থেকে যারা স্থায়ী পদে স্থায়ী নিয়োগধারী তাদেরকে জিল বাংলা চিনিকল দেওয়ানগঞ্জে মিলে বদলী করে যোগদানের নির্দেশ দিয়েছেন। তাই এ কারণে স্থায়ী চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ প্রাপ্তদের ছাঁটাই করা নির্দেশ রয়েছে বলে জানান।

 

এমটিকে/বাংলারচোখ

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

আরও খবর...
© All rights reserved © 2021 | বাংলার চোখ নিউজ  
Theme Customized BY LatestNews