বাংলার চোখ · নিত্যপণ্যে অসহনীয় উত্তাপ
  1. [email protected] : mainadmin :
বাংলার চোখ · নিত্যপণ্যে অসহনীয় উত্তাপ
মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন

নিত্যপণ্যে অসহনীয় উত্তাপ

বাংলার চোখ সংবাদ
  • সময় বুধবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১১২ দেখেছেন

করোনার মধ্যে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা যখন কমেছে, সেই সময় হঠাৎ লাগামহীন হয়ে উঠেছে নিত্যপণ্যের দাম। এ যেন ‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’। রীতিমতো নাভিশ্বাস উঠেছে ভোক্তাসাধারণের।

অস্বাভাবিক এই দাম বৃদ্ধির পেছনে যৌক্তিক কোনো কারণ নেই বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, বারবার সেই পুরনো সিন্ডিকেটের কারসাজির কারণেই মূলত এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে। বিভিন্ন সময়ে ওই সিন্ডিকেট সদস্যদের চিহ্নিত করা হলেও তাদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

ফলে নানা ইস্যুতে বছরে কয়েকবার নিত্যপণ্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে বাজার অস্থিতিশীল করে তোলে তারা। আর সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে অল্প সময়ে হাতিয়ে নেয় কয়েক হাজার কোটি টাকা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, পেঁয়াজের মূল্যে কারসাজির কারণে গত বছর অন্তত ১৫টি সিন্ডিকেটকে চিহ্নিত করেছিল সরকারের বিভিন্ন সংস্থা। এর মধ্যে এমন তথ্যও পাওয়া গিয়েছিল, একটি পক্ষ বেশি দামে বাংলাদেশে বসে পণ্য আমদানি করছে। আর যেসব দেশ থেকে আমদানি হচ্ছে, ওই সিন্ডিকেটই ওই দেশে বসে পণ্য রফতানি করছে বাংলাদেশে। অর্থাৎ যিনি আমদানিকারক, তিনিই রফতানিকারক। তবে এসব গ্রুপের বিরুদ্ধে দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। ফলে এবারও তারা দাম বাড়িয়ে অস্বাভাবিক মুনাফা হাতিয়ে নিচ্ছে।

তবে এই দাম বাড়ানোর পেছনে সেই আগের অজুহাত দেখাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, তিন কারণে পণ্যের দাম বাড়ছে। এর মধ্যে রয়েছে- ভারতসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যার কারণে পণ্যের উৎপাদন কমেছে। ইন্দো প্রদেশে পেঁয়াজের মোকামে শ্রমিকদের ধর্মঘট এবং মাওয়া ঘাটে ফেরি পারাপার বন্ধের কারণে পণ্য ঢাকায় আসতে পারছে না। ফলে বাজারে সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, কিছু কিছু পণ্যের দাম বাড়ছে। এর অন্যতম কারণ প্রকৃতির বিরূপ প্রভাব। তিনি বলেন, বন্যায় অনেক জায়গার শাকসবজি নষ্ট হয়েছে। কোথাও কোথাও ধানও নষ্ট হয়েছে। এ কারণে পণ্যের সরবরাহ কিছুটা কম। বন্যাসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগের ওপর আমাদের কারও হাত নেই। তবে দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য আমরা চেষ্টা করছি।

টিসিবিসহ সরকারি সংস্থাগুলো কাজ করছে। এ ছাড়াও শীত মৌসুম আসছে। এ সময়ে নতুন ফসল ও সবজি আসবে। এতে দাম নিয়ন্ত্রণে আসবে। পেঁয়াজের দামের ব্যাপারে তিনি বলেন, প্রতিবছর অক্টোবরের পর থেকে আমাদের উৎপাদিত পেঁয়াজ শেষ হওয়া শুরু করে। এরপর আমরা আমদানি করি। তবে গত বছর ভারত রফতানি বন্ধ করে দেয়ার পর আমরা তুরস্ক থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেছি। এতে দাম আর ওইভাবে বাড়বে না।

জানতে চাইলে দুর্নীতিবিরোধী আন্তর্জাতিক সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাল অব বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান মঙ্গলবার যুগান্তরকে বলেন, বর্তমান বাজার ব্যবস্থা ক্রেতাদের জন্য নয়, বিক্রেতাদের জন্য।

অসাধু সিন্ডিকেটের কারণে এমন হচ্ছে। যারা অসাধু ব্যবসায়ী, তারা অত্যন্ত প্রভাবশালী। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার মতো সৎসাহস আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অথবা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নেই। আবার কর্তৃপক্ষ বা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কেউ কেউ এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত, সুবিধাভোগী।

মঙ্গলবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে আরও জানা গেছে, এদিন প্রতি ডজন ডিমে ১০-১৫ টাকা বেড়ে বিক্রি হয়েছে ১১৫ টাকা। প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হয়েছে ১২৫-১৩০ টাকা, এক মাস আগে বিক্রি হয়েছে ১২০ টাকা। সবজির মধ্যে মঙ্গলবার প্রতি কেজি পেঁপে বিক্রি হয়েছে ৪৫-৫০ টাকা, এক মাস আগে ২৫-৩০ টাকা বিক্রি হয়েছে। প্রতি কেজি বেগুন বিক্রি হয়েছে ১২০-১২৫ টাকা, এক মাস আগে ৬০-৭০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

পাকা টমেটো প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছে সর্বোচ্চ ১৩০ টাকা, এক মাস আগে বিক্রি হয়েছে ৮০ টাকা। প্রতি কেজি গাজর বিক্রি হয়েছে ১১০-১২০ টাকা, এক মাস আগে ৭০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। এদিন প্রতি কেজি বরবটি বিক্রি হয়েছে ৭০-৮০ টাকা, এক মাস আগে ৪৫-৫০ টাকা বিক্রি হয়েছে। প্রতি পিস মাঝারি আকারের লাউ বিক্রি হয়েছে ৭০-৮০ টাকা, এক মাস আগে বিক্রি হয়েছে ৫০-৬০ টাকা।

প্রতি কেজি করোলা বিক্রি হয়েছে ৮০-৯০ টাকা, এক মাস আগে বিক্রি হয়েছে ৫০-৫৫ টাকা। এ ছাড়া প্রতি কেজি আলু বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকা, এক মাস আগে ২৫-৩০ টাকা বিক্রি হয়েছে। অস্বাভাবিক দাম কাঁচা মরিচে। এপ্রিল মাসে সাধারণ ছুটির শুরুতে কাঁচা মরিচের কেজি ছিল ২০ টাকা। জুন পর্যন্ত মোটামুটি ৫০ টাকার মধ্যে ছিল দাম। বর্তমানে তা ২৪০-২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কারওয়ান বাজারের সবজি বিক্রেতা মো. লিয়াকদ বলেন, দেশে বন্যার কারণে সরবরাহ কমেছে। ফলে এখন সব ধরনের সবজির দাম বাড়তি। বন্যার কারণে ভারত থেকেও পণ্য কম আসছে। ফলে দেশের বাজারে সবজির দাম বেড়েছে।

 

সামাজিক মাধ্যমগুলোতে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

এই বিভাগের আরও খবর...
DMCA.com Protection Status
© All rights reserved © 2021 www.banglarchokhnews.com  
Theme Customized BY LatestNews