বাংলার চোখ | বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে দেশব্যাপী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমাবেশ
  1. [email protected] : mainadmin :
বাংলার চোখ | বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে দেশব্যাপী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমাবেশ
সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০১:১১ অপরাহ্ন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে দেশব্যাপী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমাবেশ

বাংলার চোখ সংবাদ
  • সময় রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৪৮ দেখেছেন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে শনিবার সারাদেশে বিক্ষোভ-সমাবেশ, প্রতিবাদসভা ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

‘জাতির পিতার সম্মান, রাখবো মোরা অম্লান’ শীর্ষক প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে একটি সমন্বিত কর্মসুচির অংশ হিসেবে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

বাসস-এর গোপালগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে ও দুষ্কৃতিকারীদের বিচারের দাবীতে জেলা সদরে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরামের উদ্যোগে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় শেখ ফজলুল হক মনি মিলনায়তনে ‘জাতির পিতার সম্মান, রাখবো মোরা অম্লান’ শীর্ষক প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সহস্রাধিক সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীর উপস্থিতিতে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানার সভাপতিত্বে এ সভায় সরকারী কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।

এদিকে, জাতির পিতার ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলার মুকসুদপুর উপজেলায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোবায়ের রহমান রাশেদ। বক্তব্য রাখেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আসমত হোসেন, মৎস্য কর্মকর্তা খায়রুল ইসলাম পাভেল, কৃষি কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান, প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সচিন্দ্র নাথ, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান, সাংবাদিক হায়দার হোসেন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়াও জেলার টুঙ্গিপাড়া, কোটালীপাড়া, কাশিয়ানি উপজেলায় সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরামের ব্যানারে অনুরূপ কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

অন্যদিকে, শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় গোপালগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স-এর উদ্যোগে স্থানীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়।

বাসস-এর কুষ্টিয়া সংবাদদাতা জানান, ‘জাতির পিতার সম্মান, রাখবো মোরা অম্লান’ শীর্ষক শ্লোগানকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলার সকল সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে।

সকাল ১০ টায় কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালের সামনে এই প্রতিবাদসভা ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পানিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার, জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন, জেলা জজ অরূপ কুমার গোস্বামী, পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত এবং জেলায় গণপূর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলামসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

বাসস-এর মাগুরা সংবাদদাতা জানান, জেলা শহরের আছাদুজ্জামান মিলনাতয়নে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুর ও ভাস্কর্য বিরোধী উস্কানিমূলক প্রচারণার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জেলা বিচার বিভাগ ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ‘সরকারি কর্মকর্তা ফোরাম’ এ প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মাগুরার জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ কামরুল হাসান, জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম, পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান, সিভিল সার্জন ডাক্তার প্রদীপ কুমার সাহা, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল হালিম, সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের অধ্যক্ষ দেবব্রত ঘোষ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ কাজী শামসুজ্জামান, জেলা তথ্য অফিসার রেজাউল করিম প্রমুখ।

 

নীলফামারী সংবাদদাতা জানান, বেলা ১২ টার দিকে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে এ প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা ও দায়রা জজ মো. রেজাউল করিম সরকার, সিভিল সার্জন ডা. মো. জাহাঙ্গীর কবির, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালত-২ এর বিচারক মো. মাহাবুর রহমান, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহিদুল হক, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. আজাহারুল ইসলাম প্রমুখ।

একই দাবিতে দুপুরে নীলফামারী সিভিল সার্জন কাযালয়ের সামনে মানববন্ধন মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারের কর্মকর্তারা। এর আগে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালের সম্মেলনকক্ষে সিভিল সার্জন ডা. মো জাহাঙ্গীর কবীরের সভাপতিত্বে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অপরদিকে বেলা ১২টার দিকে জেলা শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে চেম্বার অব কমার্স এ- ই-াস্ট্রিজ। সেখানে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সংগঠনের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ফরহানুল হকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ প্রমুখ।

নোয়াখালী সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আজ শনিবার জেলায় কর্মরত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানববন্ধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক সম্মেলনকক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইসরাত সাদমীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক খোরশেদ আলম খান, জেলা দায়রা জজ ছালেহ উদ্দিন আহমেদ, পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন প্রমুখ।

ঝালকাঠি সংবাদদাতা জানান, জাতির পিতার ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলায় মানববন্ধন করেছে জেলা প্রশাসন। শনিবার সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনে অংশগ্রহন করেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ একাত্মতা প্রকাশ করেন।পরে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী, জেলা ও দায়রা জজ মো. শহীদুল্লাহ, পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন প্রমুখ।

এদিকে একই দাবিতে দুপুরে ঝালকাঠি চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ কার্যালয়ের সামনের সড়কে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. লিয়াকত আলী তালুকদার, চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি সালাহ্উদ্দিন আহমেদ সালেক, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক তরুন কর্মকার প্রমুখ বক্তব্য দেন।

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সমাবেশ করেছে।সকালে শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে এই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ড. আতাউল গণির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুব্রত কুমার সিকদার, জেলায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, জেলায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আহসানুল বাশার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সফিকুল ইসলাম, জেলা শিক্ষা অফিসার লায়লা খানম, জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহ আলম প্রমুখ।

ঝিনাইদহ সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শনিবার সকালে শহরের পোস্ট অফিস মোড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ কর্মসূচী পালিত হয়েছে। এসময় বক্তব্য রাখেন জেলা ও দায়রা জজ চাঁদ মোহাম্মাদ আব্দুল আলিম আল রাজি, অতিরিক্ত জেলা জজ এমজি আজম, জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ, পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান, সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম, জেলায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক আব্দুল হামিদ খান ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নিলুফার রহমান, জেলা নির্বাচন অফিসার রোকনুজ্জামান প্রমুখ।

বাসস-এর ফেনী সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আজ শনিবার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা প্রশাসকে কার্যালয় প্রাঙ্গনে জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে জেলা ও দায়রা জজ ড: বেগম জেবুন্নেছা, পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সুজন চৌধুরী, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ড. মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন, ফেনী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ বিমল কান্তি পাল, জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা আবু দাউদ মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা প্রমুখ।

বগুড়া সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলায় আজ ‘জাতির পিতার সম্মান রাখবো মোরা অ¤¬ান’ শীর্ষক প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জেলা সদরসহ সকল উপজেলায় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকালে শহরের জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বগুড়া জেলা প্রশাসক মো. জিয়াউল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা ও দায়রা জজ নরেশ চন্দ্র সরকার, জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম (বার), জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. গওসুল আজিম চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) উজ্জ্বল কুমার ঘোষ, জেলায় সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু সাঈদ মো. কাউছার রহমান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান প্রমুখ।
হবিগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, জাতির পিতার ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলায় আজ সরকারী কর্মকর্তা- কর্মচারীরা সমাবেশে করেছেন।

হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ এস এম নাসিম রেজা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক জিয়া উদ্দিন মাহমুদ, হালিম উল্ল্যা চৌধুরী, সুদীপ্ত দাস, সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম, সরকারী বৃন্দাবন কলেজের অধ্যক্ষ দেওয়ান জামাল উদ্দিন প্রমুখ।

বরগুনা সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর শেখ ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে আজ শনিবার দক্ষিনাঞ্চলীয় জেলাটির সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন। সকাল সাড়ে দশটা থেকে বেলা বারোটা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন বরগুনার জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ এএইচএম এসমাইল হোসেন, পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন, সিভিল সার্জন ডা. মারিয়া হাসান, বরগুনা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মতিয়ার রহমান, বরগুনা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আবদুস সালাম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুমা আক্তার প্রমুখ।

নড়াইল সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে আজ জেলায় সরকারি কর্মকর্তা ফোরামের উদ্যোগে শহরের পুরাতন বাস টার্মিনাল এলাকায় অবস্থিত ‘বঙ্গবন্ধু মঞ্চে’ এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার সভাপতিত্বে এ কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন জেলা ও দায়রা জজ মুন্সি মশিয়ার রহমান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, চিফ জুডিশিয়্যাল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী আল মাসুদ, নড়াইল সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ড. মাহাবুবুর রহমান প্রমুখ।

ভোলা সংবাদদাতা জানান, জাতির পিতার ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলায় আজ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সমাবেশ করেছেন। ‘জাতির পিতার সম্মান রাখবো মোরা অম্লান’ শীর্ষক প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সকালে শহরের বাংলা স্কুল মাঠের ভাসানী মঞ্চে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে জেলা প্রশাসক মো. মাসুদ আলম ছিদ্দিক, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, জেলা ও দায়রা জজ ড. এবিএম মাহামুদুল হক, জেলায় গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কাজী শরিফউদ্দিন আহমেদ, সিভিল সার্জন ডা. সৈয়দ রেজাউল ইসলাম, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. তৌফিকুল ইসলাম প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

বাসস-এর পিরোজপুর সংবাদদাতা জানান,জেলার সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে মিছিল ও সভা করেছেন। আজ বেলা ১১ টায় জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং জেলা ও দায়রা জজের নেতৃত্বে বিচার বিভাগের সকল বিচারক ও কর্মচারীবৃন্দ শহরের ভাগিরথী চত্বর থেকে যৌথভাবে মিছিল নিয়ে গোপালকৃষ্ণ টাউন ক্লাব মিলনায়তনে আলোচনাসভায় মিলিত হন।

জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে এ সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা ও দায়রা জজ এম মহিদুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক চৌধুরী রওশন ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান, সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজের অধ্যক্ষ মো. আলী আজম প্রমুখ।

বাসস-এর বান্দরবান সংবাদদাতা জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে জেলায় আজ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকালে বান্দরবান জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ প্রতিবাদ সভায় পুলিশ সুপার জেরিন আখতার, পার্বত্য জেলা পরিষদের নিবার্হী কর্মকর্তা শেখ শহিদুল ইসলাম, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. ফরিদ মিয়া প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

বাসস-এর জেলা সংবাদদাতারা জানিয়েছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নাটোর, লালমনিরহাট, কক্সবাজার ও নারায়নগঞ্জসহ দেশের সকল জেলায় অনুরূপ কর্মসূচি পালন করেছেন

সামাজিক মাধ্যমগুলোতে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

এই বিভাগের আরও খবর...
DMCA.com Protection Status
© All rights reserved © 2021 www.banglarchokhnews.com  
Theme Customized BY LatestNews