1. [email protected] : mainadmin :
  2. [email protected] : Mohsin Molla : Mohsin Molla
  3. [email protected] : subadmin :
বাংলার চোখ নিউজ | অনলাইন সংস্করণ | রাস্তা দখল: ৪ বছরেও কার্যকর হয়নি আদালতের আদেশ
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৩:১১ অপরাহ্ন

রাস্তা দখল: ৪ বছরেও কার্যকর হয়নি আদালতের আদেশ

বাংলার চোখ সংবাদ
  • সময়ঃ বুধবার, ৯ জুন, ২০২১

লিটন পাঠান (মাধবপুর) প্রতিনিধি :

হবিগঞ্জের মাধবপুরে আদালতের আদেশ অমান্য করে রাস্তা দখল করে রেখেছে কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যাক্তি। আদালতের রায়ের চার বছর পেড়িয়ে গেলেও এখনো রাস্তাটি দখলমুক্ত না হওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেছে ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

স্থানীয় মুরুব্বিরা জানান, পাকিস্তান আমল থেকে এটা ছিল গ্রামের প্রধান রাস্তা। কিন্তু দখল করতে করতে এখন আর একটা রিকশা পর্যন্ত চলতে পারে না। ফলে অসুস্থ রুগী কিম্বা গর্ভবতী মহিলাদের ডাক্তারের কাছে নিতে গিয়ে চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে এলাকার মানুষকে।

সরজমিনে ঘটনাস্থল উপজেলার শাহজাহান পুর ইউনিয়নের জামালপুর (ভান্ডারোয়া) গ্রামে
গিয়ে দেখা গেছে রাস্তার বেশির ভাগ অংশ স্থানীয় আরজু মিয়া, মোশারফ হোসেন, হিরা মিয়া ও তারা মিয়া ও তাদের লোকজন বিভিন্ন ভাবে দখল করে রেখেছে। স্থানীয় লোকজন জানান, দীর্ঘকাল যাবৎ এলাকাবাসী এ-ই রাস্তাটি ব্যবহার করে আসছে।

ম্যাপে রাস্তাটি কোথাও ১৮ফুট কোথাও ১৫ফুট আছে, কিন্তু বর্তমানে ৪/৫ ফুট রাস্তা আছে। বাকি অংশ উল্লেখিত ব্যক্তিরা দখল করে রেখেছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসীর পক্ষে সালাউদ্দিন মোল্লা অপু বাদী হয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, হবিগঞ্জে ফোঃ কাঃ বিঃ ১৪৭ ধারায় মামলা দায়ের করলে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এমরান হোসেন বিষয়টি সরজমিন তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য তৎকালীন সহকারী কমিশনার (ভূমি) টিনা পালকে নির্দেশ প্রদান করেন। টিনা পাল কানুনগো এ এফ এম আব্দুল মান্নান পাটোয়ারীর মাধ্যমে তদন্ত করে ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে অভিযোক্ত ব্যাক্তিরা রেকর্ডভুক্ত রাস্তাটির বেশিরভাগ অংশ অবৈধভাবে দখল করে রেখেছ মর্মে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

যাবতীয় সাক্ষী প্রমাণ গ্রহনের পর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, হবিগঞ্জ বিগত ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে বিবাদীগনকে রাস্তার যাবতীয় প্রতিবন্ধকতা অপসারণের আদেশ প্রদান করেন।

কিন্তু বিবাদী পক্ষ আদালতের আদেশ অমান্য করায়া বাদী পক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত ১ মে ২০১৭ তারিখে অনতিবিলম্বে আদেশ বাস্তবায়ন করতে ওসি মাধবপুর থানাকে এবং এসিলেন্ড মাধবপুরকে সরজমিনে একজন সার্ভেয়ার দ্বারা রাস্তার ভূমি চিহ্নিত করে যাবতীয় প্রতিবন্ধকতা অপসারণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আদেশ প্রদান করেন। কিন্তু চার বছরেও আদালতের এই রায় বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে অভিযোক্ত হিরা মিয়ার ছেলে শামীম মিয়ার মোবাইল নাম্বারে ফোন করলে তিনি তিনি কোন বক্তব্য না দিয়ে ফোন কেটে দেন। চার বছরেও কেন আদালতের আদেশ বাস্তবায়ন হয়নি জানতে মাধবপুর থানায় গেলে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি।

পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি অনেক আগের। আমি ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দুজনেই নতুন এসেছি এবিষয়ে অবগত নই। তবে এসিলেন্ড যদি আমাদের কাছে সহায়তা চায় তাহলে আমরা সহায়তা করবো।

এ ব্যাপারে এসিলেন্ড মো: মহিউদ্দিন আহমেদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিষয়টি অনেক আগের। আমি এইমাত্র অবগত হলাম খোঁজখবর নিয়ে আমি ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

 

এমটিকে/বাংলারচোখ

সামাজিক মাধ্যমগুলোতে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

এই বিভাগের আরও খবর...
© All rights reserved © 2021 www.banglarchokhnews.com  
Theme Customized BY LatestNews