1. [email protected] : mainadmin :
  2. [email protected] : subadmin :
বাংলার চোখ | সিরাজগঞ্জে এনায়েতপুরে সড়ক নির্মানে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ
বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন

সিরাজগঞ্জে এনায়েতপুরে সড়ক নির্মানে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

সেলিম রেজা
  • সময়ঃ বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :

সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানার জালালপুর ইউনিয়নের সৈয়দপুর ওয়াবদা থেকে চৌবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সড়ক নির্মান কাজে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। নিন্মমানের সামগ্রী দিয়ে যেনতেন ভাবে সড়ক নির্মানের প্রতিবাদে ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসি।

নিম্নমানের খোয়া ব্যবহার করায় প্রথম দফায় কাজ বন্ধ করে দিলেও আবার পুনরায় সেই সামগ্রী দিয়েই কাজ শুরু করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জেকে এন্টার প্রাইজ। ঠিকাদার ও স্থানীয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, এনায়েতপুর থানার জালালপুর ইউনিয়নের পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের দুর্ভোগ লাগবে শাহজাদপুর উপজেলা এলজিইডির তত্ববধানে প্রায় সাড়ে ৬শ মিটার গ্রামীন সড়ক উচু ও পাকা করণে (সিরাজগঞ্জ প্রকল্প) ৬৮ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়।

গত বছর বর্ষার আগে নিচু এ সড়কে মাটি ভরাট শুরু হয়। বৃষ্টির কারনে মাঝে কাজ বন্ধ ছিল, তবে প্রায় সাড়ে ৩ মাস আগে আবার পুনরায় সড়ক নির্মান কাজ শুরু হয়। এবিষয়ে জালালপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য বাবলু হোসেন অভিযোগ করেন, সিডিউল অনুযায়ী সড়ক নির্মান হচ্ছে না।

ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিকে এন্টার প্রাইজ ইচ্ছেমত যেনতেন ভাবে কাজ শেষ করার পায়তারা করছে। তিনি আরও বলেন, ১ নং ইট সড়ক এলাকায় এনে ভেঙ্গে ব্যবহারের কথা থাকলেও ৪নং খোয়া এনে কাজ করছে। এর প্রতিবাদে স্থানীরা সম্প্রতি কাজ বন্ধ করে দেয়।

পরে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের লোকজন এসে ৪নং খোয়া বদলিয়ে ১নং ইটের খোয়া দিয়ে কাজ করার নির্দেশ দেন। সে নির্দেশ অমান্য করে ৪নং খোয়া দিয়ে পুনরায় কাজ করছে। এছাড়া সড়ক নির্মানের শুরুতেই প্রায় ১শ’ মিটার প্রটেকশন ওয়াল দেয়ার কথা থাকলেও তা না দিয়ে বাঁশ ও জাল দিয়ে বেড়া দেয়া হয়েছে। একই সাথে সড়কে নামমাত্র মাটি দিয়ে খোয়া ফেলা হচ্ছে।

১০ ফিট পাকা সহ দু’পাশে মাটি ফেলে সর্বমোট ১৬ ফিট চওড়া সড়ক হবার কথা থাকলেও তা করা হচ্ছে না। এ বিষয়ে ওই সড়কের পাশের বাসিন্দা কয়েকজন বাসিন্দা ও প্রবীণ ইউপি সদস্য আবু মুছা জানান, সড়ক নির্মানে ঠিকাদার ইচ্ছেমত কাজ করছে। এ যেন মগের মুল্লুক, দেখার কেউ নেই। উন্নয়ন কাজের সাথে ঠিকাদারের লুটপাট ও তামাশা দেখতে দেখতে স্থানীয়রা অতিষ্ট। তবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সড়ক নির্মান কাজে তদারকির দায়িত্বপ্রাপ্ত জিয়াউর রহমান জানান, এ সড়ক নির্মানে ঠিকাদারকে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। অভিযোগ সত্য না।

তবে ৪ নং ইটের খোয়া বদলিয়ে ভাল খোয়া দিয়ে এখন কাজ চলছে বলে দাবি করেন তিনি। এছাড়া মাটির ভরাট ও প্রটেকশন ওয়াল নির্মানের কাজ ভাল ভাবেই করা হবে। এবিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী আহাম্মেদ রফিক জানান, অভিযোগ পেয়ে এর আগে কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। এরপরও যদি নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করা হয় তা মেনে নেয়া হবে না। সিডিউল অনুযায়ী সড়ক নির্মানে সর্বাত্মক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সামাজিক মাধ্যমগুলোতে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

এই বিভাগের আরও খবর...
© All rights reserved © 2021 www.banglarchokhnews.com  
Theme Customized BY LatestNews